প্রয়াত নেতা রাজ্জাককে স্মরণ করে কাঁদলেন তোফায়েল

প্রতিনিধি, ডামুড্যা:

আওয়ামী লীগের প্রয়াত নেতা আবদুর রাজ্জাকের কথা স্মরণ করে শরীয়তপুরের একটি আলোচনা সভায় কেঁদেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। দীর্ঘদিনের বন্ধুর কথা স্মরণ করে সবার সামনেই হু হু করে কেঁদে উঠেন আওয়ামী লীগের এই বর্ষীয়ান নেতা।

মঙ্গলবার শরীয়তপুরে পূর্ব মাদারীপুর কলেজ সরকারিকরণ উপলক্ষে আয়োজিত সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য দিচ্ছিলেন তোফায়েল।
সাবেক মন্ত্রী ও মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক আবদুর রাজ্জাক ছিলেন শরীয়তপুরের জনপ্রিয় নেতা। সংসদ সদস্য থাকা অবস্থায় ২০১১ সালে তিনি ইন্তেকাল করেন। তার সঙ্গে ছাত্রজীবন থেকেই বন্ধুত্ব ছিল তোফায়েল আহমেদের। একসঙ্গে তারা রাজনীতি করেছেন, কারাবরণ করেছেন। দীর্ঘদিনের বন্ধুত্বের সেই স্মৃতিচারণ অনেকটা আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন তোফায়েল।

তোফায়েল তার বক্তৃতায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে আওয়ামী লীগের সংলাপ প্রসঙ্গে কথা বলেন। তিনি জানান, সংবিধান অনুযায়ী এই সংলাপ হবে। সংবিধানের বাইরে কোনো কিছু হবে না।

বক্তৃতায় তিনি বিএনপির কড়া সমালোচনা করেন। বলেন. বিএনপি ২০১৩ সালে হত্যা, খুন, অগ্নিসংযোগ করেছিল। নির্বাচন বানচালের জন্য ২০১৪ সালে পেট্রলবোমা নিক্ষেপ করে অনেক মায়ের কোল খালি করেছে। ৫০০ ভোটকেন্দ্র পুড়িয়ে দিয়েছিল। ২২ জন পুলিশ সদস্যকে হত্যা করেছিল। তারপরও তারা সফল হয়নি। তারা সে সময় সফল হয়নি, আগামীতেও সফল হবে না।

মন্ত্রী বলেন, উন্নয়নশীল দেশ হতে হলে তিনটি ক্রাইটেরিয়া পূরণ করতে হয়। তিনটি হলো মানুষের মাথাপিছু আয়, মানব সমাজের উন্নয়ন সূচক ও অর্থনৈতিক ভৌগলতা। তিনটিই আমরা পার করেছি।  তিনি বলেন, ২০২৪ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে মধ্যম আয়ের দেশ। আর ২০৪১ সালে মধ্যে দেশ হবে উন্নয়নশীল দেশ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে আমরা কাজ করে চলেছি।

সমাবেশে প্রধান বক্তা ছিলেন শরীয়তপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য নাহিম রাজ্জাক। শরীয়তপুর জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন শরীয়তপুর পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে ।

এ সময় ডামুড্যা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন মাঝি, ডামুড্যা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাস্টার কামাল উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান বাবলু সিকদার, ডামুড্যা পৌরসভার মেয়র হুমায়ুন কবির বাচ্চু ছৈয়াল, সাবেক মেয়র রেজাউল করিম রাজা ছৈয়াল, পূর্ব মাদারীপুর কলেজের অধ্যক্ষ জহিরুল্লাহ, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি বিএম আব্দুস সাত্তার, সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান শামিম, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. মেহেদী হাসান রুবেল, সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামন মন্টি মাঝি প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s